ত্রই দেশের জনসংখ্যার থেকে পর্যটকের সংখ্যা ১০ গুন কেন জানলে অবাক হবেন?

আপনি কি কখন ভেবে দেখেছেন ? একটি দেশের জনসংখ্যা থেকে পর্যটকের সংখ্যা বেশি। আমরা কি কখন চিন্তা করতে পারি ১৬ কোটি মানুষের বাংলাদেশে ১৭ কোটি টুরিষ্ট আসবে। ৩০ বর্গ মাইলের বেশি কিছু আয়তনের দেশ সান মেরিনো দেশটিতে প্রায় জনসংখ্যা থেকে পর্যটকের সংখ্যা বেশি হয়। আমাদের দেশের একটি থানার সমান এর আয়তন। দেশেটির চারদিকে উওর দক্ষিনে সাপের মত পেছিয়ে রেখেছেন ইতালি। ইউরোপে অন্যতম বৃহওম দেশটি তার পেটের ভেতরে আগলে রেখেছে ক্ষুদ্র সান মেরিনোকে। এদেশের ভূমি এবরোথেবরো এবং খুব একটা উর্বর নয়। কিন্তু ছোট দেশটির প্রকৃতি নয়নাবিরাম পাহাড়ের সারির সাথে তাল মিলানো সবুজের সমাহার অপরূপ সাজে সাজিয়েছে দেশটিকে। মাউন্ট ইটানো সর্বোচ্চ শৃঙখল থেকে পুরো দেশটিকে দেখা যায়। আদালতের এই শাস্তি পাওয়া মারীনাচ জনহীন প্রান্তরে এসে আবাস গড়ে তুলেন সেই ২০০১ সালের কথা। এখনো দেশটির  জনসংখ্যা অর্ধলাখের বেশি হয় নাই। আদম-শুমারি অনুসারে ৩১ হাজার জনসংখ্যার দেশ সান মারিনো। দেশটিতে বছরে গড়ে পর্যটক আসে ৩৩ লাখ একজন মানুষের বিপরীতে পর্যটকের হার ১০ জনেরর বেশি। পৃথিবীর অন্য কোন দেশে কল্পনা করা যায় না। একটি দেশে বিপুল পরিমানে পর্যটকের আকর্ষনের বেশ কিছু কারন রয়েছে। অল্প রহস্যে ঘেরা ছোট সান মারিনো সবুজের সমাহার রূপে তাল মিলানো পাহাড়ের সারি এরি মধ্য দিয়ে চলে গিয়েছে তীরের মত সোজা রাস্তা। সাধারন গরম আর ভালো লাগা হালকা শীতের এই দেশ। ইউরোপিয়দের প্রিয় নানা মদপানীয় তীব্র ভাবে টানে ইতালিযান, ফ্রান্স আর ব্রিটিশদের এই স্থানে। রাস্তার দু ধারে রয়েছে সবসময় পর্যটকের মিছিল। সর্বোচ্চ পাহাড় মাউন্ট ইটানো রহস্যে ভরা এর সর্বোচ্চ তিনটি শৃঙ্গে তৈরি করেছেন আকর্ষনীয় স্থাপনা সবকিছু মিলিয়ে দেশটিকে বলা যায় একটি পর্যটক কেন্দ্র।

Post Author: রাকিব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *